মোবাইল দিয়ে জিমেইল ফোল্ডার তৈরি | How to create Email Folder in mobile

আশা করি বন্ধুরা ভালো আছেন। আজ আমি জিমেইলে কিভাবে ফোল্ডার তৈরি করতে হয় এই বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করব। এই একই নিয়মে আপনি কম্পিউটারেও  gmail ফোল্ডার তৈরি করতে পারবেন। আশা করি আপনারা মনোযোগ সহকারে পোস্টটি পড়লে এ বিষয় সম্পর্কে পরিপূর্ণ ধারণা লাভ করতে পারবেন এবং উক্ত বিষয়টি আপনাদের অনেক উপকারে আসবে।

 

মোবাইল দিয়ে জিমেইল ফোল্ডার তৈরি

Gmail  Folder

মোবাইল দিয়ে জিমেইল ফোল্ডার তৈরি করা খুবই সহজ। আমার লেখাটা যদি আপনি খুব ভালো করে পড়েন তাহলে আপনি নিজেই জিমেইলে অনেকগুলি গ্রুপ তৈরি করতে পারবেন। আমাদের জিমেইল অনেক ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হয়ে থাকে। আপনার গুরুত্বপূর্ণ ডকুমেন্ট ইমেজ বা অন্যান্য প্রয়োজনীয় কিছু তথ্য পাঠানোর জন্য জিমেইলে সবচেয়ে নিরাপদ। আপনার যদি গ্রুপ তৈরি থাকে তাহলে খুব সহজেই আপনি উক্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলি পাঠাতে পারেন।

আরো পড়ুন

how to open gmail account in Android 

  মোবাইল দিয়ে Gmail ফোল্ডার তৈরি

 যে কোন ব্রাউজারে গিয়ে মোবাইলটিকে সর্বপ্রথম ডেস্কটপ ভার্সন করে নিতে হবে অর্থাৎ থ্রি ডট মেনুতে ক্লিক করে ডেক্সটপ করে নিবেন। তাহলে মোবাইল ফাংশন কম্পিউটারের মত  হবে।

১.  ব্রাউজারের উপরের দিকে ডান পাশে ৯টি ডট যে আইকনটি আছে উক্ত আইকনটিতে ক্লিক করব।

২. ক্লিক করা পর অনেকগুলি অ্যাপ দেখতে পাবো ওই অ্যাপসগুলি মূলত গুগলের পরিষেবা।

৩. ওখান থেকে Contacts এ ক্লিক করব।

৪.যে ইন্টারফেস আসবে, Create contact এ ক্লিক করব।

৫. Create a contact এ ক্লিক করব।

৬. তারপর যে ইন্টারফেস দেখতে পাবেন, ওখানে  First name দিবেন, Last name দিবেন, এবং Email এ ক্লিক করে Email দিবেন। তারপর Save এ ক্লিক করবেন।

৭. আপনার একটি জিমেইল save হলো।

৮. এভাবে আগের নিয়মে অনেক জিমেইল সেভ করতে পারবেন।

৯. আপনি যদি চান আপনার save করা নামের জিমেইল গুলি একটি ফোল্ডার এর মধ্যে রাখতে বা নতুন কোন নাম দিয়ে উক্ত জিমেইল গুলি ওই নামের ফোল্ডারে রাখতে সেটা করতে পারেন।

১০. Create contact এর নিচে দেখবেন Contacts লেখা। Contacts এ ক্লিক করবেন।

১১. আপনি যে কয়টি মেইল save করবেন, উক্ত মেইলগুলি contacts এ নাম্বার আকারে দেখাবে।

১২. প্রত্যেকটি মেইলে মাউসের কার্সর রাখলে নামের বামপাশের দিকে বক্স দেখতে পাবেন।

১৩. আপনি যে কয়টি mail দিয়ে গ্রুপ বা ফোল্ডার তৈরি করতে চান উক্ত প্রত্যেকটি মেইলের বক্সে টিক মার্ক দিবেন।

১৪. টিক মার্ক দেয়ার পর contacts লেখার উপরের দিকে কিছু আইকন দেখতে পাবেন।

১৫. আইকনের উপর মাউসের এর কার্সর রাখলে যে আইকনটিতে Manage labels লেখা আসে, উক্ত আইকনটিতে ক্লিক করবেন।

১৬.Create label এ ক্লিক করবেন।

১৭.তারপর আপনার পছন্দমত একটি নাম দিবেন এবং Save এ ক্লিক করবেন।

১৮.এবার লক্ষ্য করলে দেখতে পারবেন, আপনি Create label  এ যে নাম দিয়ে save করেছেন উক্ত নামটি create contact এর নিচের দিকে একটি ফোল্ডার হিসাবে আছে।

১৯.ওই নামে  টিতে ক্লিক করলে আপনি যে কয়টি জিমেইল সেভ করেছেন উক্ত জিমেইল গুলো দেখতে পাবেন।

২০.আপনি চাইলে আরো নতুন ইমেইল যুক্ত করতে পারবেন।

২১.নতুন ফোল্ডার তৈরি করতে আপনি যে নামে ফোল্ডার তৈরি করেছেন উক্ত নামে ক্লিক করবেন। তারপর create contact এ ক্লিক  করবেন। তারপর আগের নিয়মে তৈরি করবেন।

২২.এবার উপরে বামপাশের এরো চিহ্নে ক্লিক করে back এ যাবেন।

২৩.তারপর Gmail বক্স আইকনটিতে ক্লিক করবেন।

২৪.কোন কিছু পাঠাতে চাইলে Compose এ ক্লিক করবেন।


২৫. To তে আমি যে ফোল্ডার তৈরি করেছিলাম উক্ত ফোল্ডারের নাম লিখতেই ইমেইল গুলো দেখতে পাবেন।এখান থেকে আপনি যে কোন ইমেইলে আপনার যে কোন প্রয়োজনীয় তথ্য পাঠাতে পারেন।


পরিশেষে বলা যায়, জিমেইল আমাদের গুরুত্বপূর্ণ কাজে ব্যবহার করা হয়ে থাকে। আর এই জিমেইল অত্যন্ত নিরাপদ।তাই জিমেইলে যদি আপনি কোন গুরুত্বপূর্ণ ফাইল শেয়ার করতে চান, গুরুত্বপূর্ণ নাম্বার সেভ করে রাখতে চান তাহলে জিমেইলে সর্বোত্তম পন্থা। আপনার ফোন যদি হারিয়েও যায় তারপরও আপনার জিমেইল আইডি যদি মনে থাকে উক্ত তথ্যগুলি আপনি পেতে পারেন।

 আরো পড়ুন

how to check GP minute balance 
টেলিটক সিম 4G করার নিয়ম
নগদ কাস্টমার কেয়ার নাম্বার
My Banglalink app login করার সহজ নিয়ম

আশা করি লেখাটি আপনাদের অনেক ভালো লাগবে এবং অনেক উপকারে আসবে। এরকম নিত্য নতুন তথ্য পেতে আমার সাইটটিতে ভিজিট করুন। আমার সাইটটিতে ভিজিট করার জন্য আপনাদের সকলকে ধন্যবাদ।আশা করি আপনারা আবারও আমার সাইটটি ভিজিট করবেন।

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url